কলেরা থেকে বাঁচতে দ্বীপে যাওয়ার পথে ফেরি ডুবে ৯০ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
০৬:৩৯:১২পিএম, ৮ এপ্রিল, ২০২৪

মোজাম্বিকের উত্তর উপকূলে ফেরি ডুবিতে অন্তত ৯০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। নামপুলা প্রদেশের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ওই ফেরিতে থাকা ১৩০ জনের মধ্যে মাত্র পাঁচ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। খবর বিবিসি।

নামপুলা রাজ্যের সেক্রেটারি জাইম নেটোর বরাত দিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যমটি জানায়, কলেরার প্রাদুর্ভার থেকে বাঁচতে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। নিহতের মধ্যে অনেক শিশু রয়েছে।

নেটো বলেন, ফেরিতে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশী যাত্রী উঠানো হয়। ফলে এটি ডুবে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করা ভিডিওতে দেখা যায় ফেরি ডুবির ঘটনায় নিহত অনেকের দেহ সমুদ্র সৈকতে রাখা হয়েছে।

ফেরিটি নামপুলা উপকূলের লুঙ্গা থেকে মোজাম্বিক দ্বীপে যাচ্ছিল। কারণ নামপুলা রাজ্যে কলেরা মহামারি ছড়িয়ে পড়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার এই দেশটিতে গত বছরের জানুয়ারি থেকে কলেরা মহামারি প্রকট আকার ধারণ করেছে।

ইউনেসেফের তথ্যানুয়ায়ী, গত ২৫ বছরের মধ্যে দেশটিতে কলেরা মহামারি সবচেয়ে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ২০২৩ সালের অক্টোবরের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোজাম্বিকে ১৩ হাজার ৭০০ জন কলেরায় আক্রান্ত হয়েছে এবং ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত ছয় বছর আগে পাশ্ববর্তী রাজ্য কাবো ডেলগাডো ইসলামপন্থি একটি বিদ্রোহী গোষ্ঠী দখলে নেওয়ার পর সেখানে ৪ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে এবং বাস্তুচ্যুত হয়েছে প্রায় ১০ লাখ মানুষ।

প্রায় ৪০০ বছর ধরে মোজাম্বিক দ্বীপটি পর্তুগিজ পূর্ব আফ্রিকার রাজধানী ছিল। যখন অঞ্চলটি ঔপনিবেশিক শাসনের অধীনে ছিল তখন এটিতে ঔপনিবেশিক স্থাপত্য এবং একটি ট্রেডিং পোস্ট হিসাবে সমৃদ্ধ ইতিহাসের জন্য ইউনেস্কো একে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান দেয়।